June 29, 2022

Knight TV

fight for justice

শপিং মল বন্ধ রাখার নির্দেশ

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে খাবারের দোকান ও ফার্মেসি ছাড়া সব শপিং মল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে সৌদি সরকার। রোববার (১৫ মার্চ) দেশটির সরকার এ নির্দেশ দেয়। তবে রেস্তোরাঁ ও ক্যাফেতে খাবার পরিবেশন নিষিদ্ধ করলেও বাইরে খাবার সরবারহের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

সৌদি আরবের বন্দরনগরী জেদ্দার অন্যতম শপিং সেন্টার খারেস সাওয়ারিখের বিভিন্ন মলের কর্তৃপক্ষের কাছে রোববার মাগরিবের পর থেকে নোটিশ দেয় স্থানীয় প্রশাসন।

সৌদি আরবে বিয়েসহ সকল জনসমাবেশ স্থগিত রাখার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার জন্য শপিং মলগুলোর ভেতর ও বাইরে বিনোদনমূলক এবং খেলাধুলার জায়গাগুলো অস্থায়ীভাবে বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সরকার।
চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী ১ লাখ ৬৭ হাজারন ৫৪৩ জন আক্রান্ত হয়েছে। এতে মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার ৪৫৫ জনের। এ পরিস্থিতিতে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসকে বৈশ্বিক মহামারি ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

এদিকে করোনাভাইরাসে যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত ৩ হাজার ২৮৬ জন আক্রান্ত হয়েছে। এতে দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৬২ জনের। যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রগুলো এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত্রে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। দেশটিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে করোনা সংক্রমিত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ গেল ৩৫ জনের। আর এতে যুক্তরাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ৩৭২।

চীনের পর সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যুর ঘটনা ইউরোপের দেশ ইতালিতে। সেখানে এখন পর্যন্ত ২৪ হাজার ৭৪৭ জন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। আর করোনায় মৃত্যু হয়েছে। ১ হাজার ৮০৯ জনের।
ইউরোপে করোনাভাইরাসে দ্বিতীয় ক্ষতিগ্রস্ত দেশ স্পেন। রোববার (১৫ মার্চ) পর্যন্ত দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ৭ হাজার ৭৫৩ জন। এছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৫১৭ জন রোগী চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে বলে জানিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

দেশটিতে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ১৫৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে স্পেনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৯২ জনে।

স্পেনে করোনার প্রকোপ যেন বাড়তে না পারে সেজন্য ইতোমধ্যে লোকজনের চলাচলে বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়েছে। এদিকে দেশে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে স্পেন সরকার। এই জরুরি অবস্থা ১৫ দিন পর্যন্ত কার্যকর থাকবে। খাবারের দোকান, ওষুধ, কর্মক্ষেত্র, হাসপাতাল বা জরুরি কাজ ছাড়া বাইরে বের হওয়া যাবে না। সবাইকে বাড়িতেই অবস্থানের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।