June 29, 2022

Knight TV

fight for justice

প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণ, হাতেনাতে ধর্ষক আটক

খুলনার পাইকগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এজাজ শফী জানান, মৃত কফিলউদ্দিনের স্ত্রী ভানু বিবি (৭০) তার প্রতিবন্ধি মেয়েকে (৩৫) নিয়ে পাইকগাছা থানাধীন শিববাটি এলাকার নিজ বাড়িতে বসবাস করছেন। তার মেয়ে প্রায় ২০ বছর ধরে মানসিক বিকারগ্রস্ত। আজ রাত সাড়ে ১২ টার দিকে মেয়েটি তার ঘরে এবং ভানুবিবি নিজ ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন। এ সময় ধস্তাধস্তির শব্দ শুনে ভানু বিবি মেয়ের ঘরে গিয়ে দেখতে পান, মোমিন গাজী তার মেয়েকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করছে। ভানু বিবির ডাক চিৎকারে মোমিন গাজী পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে আশেপাশের লোকজন ছুটে এসে তাকে ধরে ফেলে। পুলিশ সংবাদ পেয়ে রাত দেড়টার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছে মোমিন গাজীকে আটক করে। মেয়েটি মানসিকভাবে বিকারগ্রস্ত হওয়ায় ঘটনার পর কিছু বলতে না পারলেও পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে মোমিন গাজী জানায়, ইনজেকশানের মাধ্যমে নিজে বন্ধ্যাত্ব গ্রহণ করে মানসিক বিকারগ্রস্ততার সুযোগে মেয়েটিকে এর আগেও একাধিকবার ধর্ষণ করেছে।

তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় মা ভানু বিবি বাদি হয়ে থানায় মামলা করেছেন। গ্রেফতারকৃত মোমিন গাজী উপজেলার ৭ নং গদাইপুর ইউনিয়নের চরমোলাই গ্রামের মৃত আদম গাজীর ছেলে। গ্রেফতারের পর তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। অন্যদিকে ধর্ষণের শিকার প্রতিবন্ধি নারীকে পুলিশ প্রহরায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি)পাঠানো হয়েছে।
উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা সরদার আলী আহসান জানিয়েছেন, মোমিন গাজীকে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের সময় তিনি উপস্থিত ছিলেন। মেয়েটি নিবন্ধিত একজন প্রতিবন্ধি।

প্রসঙ্গত, গত ১ আগষ্ট পাইকগাছা উপজেলার কালুয়া গ্রামে এক প্রতিবন্ধি কিশোরীকে অপহরণ ও জোরপূর্বক বিয়ের ঘটনা ঘটেছিল। ওই ঘটনায় দুই আইনজীবিসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়।

খুলনার পাইকগাছা উপজেলায় এক প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এলাকাবাসী হাতেনাতে আটকের পর ধর্ষক মোহাম্মদ মোমিন গাজীকে (৪৫) পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। পুলিশ ধর্ষণের শিকার ওই প্রতিবন্ধী নারীকে চিকিৎসা ও পরীক্ষার জন্য আজ বুধবার সকালে পুলিশ প্রহরায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি তে প্রেরণ করেছে।